eibela24.com
শুক্রবার, ১৪, ডিসেম্বর, ২০১৮
 

 
পরিকল্পনা করে ভোটের দিন ঘোষণা সরকারের : দিলীপ ঘোষ
আপডেট: ০৯:০৬ am ০১-০৪-২০১৮
 
 


“রাজ্য সরকার নিজের প্রয়োজন ও পরিকল্পনা অনুযায়ী ভোটের দিন ঘোষণা করেছে। মমতা ব্যানার্জি আগে থেকে জেলায় জেলায় সরকারি পয়সায় পঞ্চায়েত ভোটের প্রচার করে এসেছেন। পরীক্ষাকে ১০দিন পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। যাতে বিরোধীরা প্রচার করতে না পারে। এবার পঞ্চায়েত ভোটে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত (উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার জন্য) প্রচার করতে দেওয়া হবে না। হাতে থাকবে মাত্র ১৫ দিন। কী করব ভেবে দেখছি।” রাজ্য নির্বাচন কমিশনের তরফে পঞ্চায়েত ভোটের দিন ঘোষণার আগে একথা বললেন দিলীপ ঘোষ।

শুক্রবার বেলা তিনটার পর পঞ্চায়েত ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণা করে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। ১,৩ ও ৫ মে হচ্ছে পঞ্চায়েত নির্বাচন। তার আগেই বিভিন্ন সূত্র থেকে খবর পাওয়া যায়, ভোট হচ্ছে ১ থেকে ৫ মে। 
 
পঞ্চায়েত ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষনার পর জলপাইগুড়ি পঞ্চমুখি হনুমান মন্দিরে পুজা দেন দিলীপবাবু। বলেন, “হনুমান মন্দিরে পুজা দিয়ে ভোটের প্রস্তুতি শুরু করলাম। আশীর্বাদ পাবই। আর এত কম সময়ে ভোটের জন্য আমরা আইনজীবীর সঙ্গে কথা বলব। কারণ এর আগে মমতা আদালতে গিয়েছিলেন ভোটের জন্য।”

এছাড়া শনিবার জলপাইগুড়ির রানিনগরের পঞ্চায়েত নির্বাচন নিয়ে জেলায় দলীয় কর্মীদের নিয়ে বৈঠক করেন দিলীপবাবু। সেখানে দলীয় কর্মীদের প্রতি তাঁর বার্তা, “ভোটের দিন গ্রামের জামাই এলেও ঢুকতে দেবেন না। বলবেন ভোটের পরে আসুন। প্রত্যেকটা বুথ আগলে রাখতে হবে আমাদের। কেউ বেশি উলটোপালটা করলে বাঁশের লাঠিতে তেল মাখিয়ে রাখুন। বহিরাগত কেউ এলে যেন হাসপাতাল হয়ে বাড়ি যেতে হয়।”

নি এম/