eibela24.com
শনিবার, ১৭, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
হবিগঞ্জে চাকুরী দেয়ার নামে ৩ যুবককে জিম্মি করে টাকা আদায়
আপডেট: ০৪:৩৩ pm ২১-০৪-২০১৮
 
 


শিক্ষিত বেকার যুবকদের চাকরি দেয়ার নামে ঢাকার একটি কোম্পানি হাতিয়ে নিচ্ছে লাখ লাখ টাকা। এই কোম্পানিতে চাকুরি করতে গিয়ে প্রতারণার শিকার হয়েছেন হবিগঞ্জের নবীগঞ্জের ৩ যুবক। কোম্পানিটি নবীগঞ্জের ৩ যুবকের কাছ থেকে হাতিয়ে নিয়েছে প্রায় ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা। 

প্রতারণার শিকার যুবকরা হচ্ছেন নবীগঞ্জের বাঘাউড়া গ্রামের সফিক মিয়া, করগাও গ্রামের মাসুদ আহমেদ, গুমগুমিয়া গ্রামের কাওছার আলম। এদের দু’জন নবীগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ থেকে স্নাতক সম্পন্ন করে বেকার ছিলেন।

প্রতারণার শিকার মাসুদ বলেন, আমি বেকার থাকায় ঢাকার লাইফ ওয়ে কোম্পানি কর্মকর্তা সিলেটের মামুন নামে জনৈক যুবকের মাধ্যমে ঢাকা যাই। সেখানে নবীগঞ্জের আমার বন্ধু সফিক মিয়া ও কাওছার আলমকে দেখতে পাই। পরে আমাদের একটি ঘরে আটক করে বাড়ি থেকে টাকা এনে দেয়ার কথা বলে। অন্যতায় আমাদের ইলেক্ট্রিক শর্ট দেয়া হবে বলে জানায় মামুন। পরে সেখানে থেকে আমরা ৪০ হাজার টাকা করে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা বিকাশের মাধ্যমে পাঠাই। কিন্তু এর পরও ছেড়ে না দেয়ায় রাতের আধারে আমি কৌশলে পালিয়ে আসি।

কাওছার ও সফিক জানান, মাসুদ আসার কয়েক দিন পর আমরাও সেই মরণ খোপ থেকে পালিয়ে আসি। কাওছার আলম বলেন, এর আগে আমাদের মাধ্যমে ওই কোম্পানিতে আরোও যুবককে নিয়ে যাওয়ার জন্য বলা হয়। এ শর্তে রাজি না হওয়ায় আমাদের উপর একের পর এক নির্যাতন চালায় ওই কোম্পানির লোকজন। তিনি বলেন, সেখানে তাদের মোবাইল ফোনে কথা বলতে না দেয়া সহ বাহিরে বের হওয়ার সুযোগ ছিল না। বেকারত্ব গোছাতে চাকুরীর লোভে স্থানীয় কিছু এজেন্ট এর মাধ্যমে সেখানে গিয়ে দেশের বিভিন্ন স্থানের শত শত শিক্ষিত যুবকরা প্রতারণার শিকার হয়ে আটকা পড়ে আছেন বলে জানায় তারা। এ ঘটনায় শুক্রবার নবীগঞ্জের শহরের ওসমানী রোডস্থ একটি কক্ষে শালিস বৈঠক বসলে প্রতারিত হওয়ার কথা স্বীকার করে যুবকরা।

নি এম/