eibela24.com
বৃহস্পতিবার, ১৫, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
ফরিদপুরে বেডরুম থেকে ব্যাংক কর্মকর্তা ও কলেজ শিক্ষিকার লাশ উদ্ধার
আপডেট: ১০:৩৮ am ০৭-০৫-২০১৮
 
 


ফরিদপুরে একই ঘর থেকে এক কলেজ শিক্ষিকা এবং এক ব্যাংক কর্মকর্তার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তাঁরা হলেন জেলার সরকারি সারদা সুন্দরী মহিলা কলেজের সহকারী অধ্যাপক সাজিয়া বেগম ও সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা ফারুক হাসান।

রবিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে শহরের দক্ষিণ ঝিলটুলি এলাকার দোতলা ভবনের নিচতলায় ফারুক হাসানের ঘর থেকে মরদেহ দুটি উদ্ধার করে কোতোয়ালি থানা পুলিশ।

জানা যায়, সাজিয়া বেগম দুই ছেলে নিয়ে ফারুক হাসানের ফ্লাটের পাশের ফ্লাটে থাকতেন। তার স্বামী ঢাকায় ব্যবসা করেন। তাদের বাড়ি রাজধানীর সূত্রাপুর থানার বানিয়া নগর। তারা ১ বছর আগে এই বাসা ভাড়া নেন। 

আর ব্যাংক কর্মকর্তা ফারুক হাসান ১ মাস আগে ভাড়া নেন। ১ মাস আগে বাসা ভাড়া নিলেও তিনি থাকতেন না। দুই দিন আগে তিনি বাসায় এসে উঠেছেন।

ফরিদপুরের সহকারী পুলিশ সুপার মো. আতিকুল ইসলাম জানান, রাতে শহরের দক্ষিণ ঝিলটুলি এলাকায় ফারুক হাসানের ঘর থেকে মরদেহ দুটি উদ্ধার করা হয়। তাঁরা দুজন একই ফ্লোরের দুই ইউনিটের পাশাপাশি ফ্ল্যাটে থাকতেন। বিকেল থেকে সহকারী অধ্যাপক সাজিয়া বেগমের পরিবার তাঁকে খুঁজে পাচ্ছিল না। রাতে ফ্ল্যাটের মালিক মাহমুদ হাসান ডেবিট দরজা খুলে দেখতে পান, ব্যাংকার ফারুক হাসানের মরদেহ ঝুলছে। তা দেখে তিনি পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ গিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় ব্যাংকারের ও একই ঘরের মেঝে থেকে নারী সহকারী অধ্যাপকের লাশ উদ্ধার করে।

নিহত কলেজ শিক্ষিকার স্বামী শেখ শহিদুল ইসলাম জানান, বিকাল ৪টার দিকে স্ত্রীর সাথে শেষ কথা হয়। তখন সে জানায় বাসায় আসছে। এর পর রাত হয়ে গেলেও বাসায় না ফেরায় খোঁজাখুঁজি শুরু করি, তার কলিগদের জানাই। কোথায় খুঁজে না পেয়ে থানায় জানাই।

সহকারী পুলিশ সুপার আরো বলেন, নিহত দুজনের গায়ে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ময়নাতদন্ত প্রতিবেদন হাতে পেলে বিস্তারিত জানাতে পারবো।

নি এম/