eibela24.com
মঙ্গলবার, ২০, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
আখরোটের পুষ্টিগুন
আপডেট: ১০:৩৭ am ০৯-০৫-২০১৮
 
 


দেহের জন্য প্রয়োজনীয় মিনারেলের একটি বিরাট উৎস আখরোট। এতে আছে ম্যাঙ্গানিজ, পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, কপার এবং অন্যান্য খনিজ পদার্থ। ফলটি গোলাকার এবং ভেতরে একটি বীজ থাকে। পাকা ফলের বাইরের খোসা ফেলে দিলে ভেতরের শক্ত খোলসযুক্ত বীজটি পাওয়া যায়; এই খোলসের ভেতরে থাকে দুইভাগে বিভক্ত বাদাম যাতে বাদামি রঙের আবরন থাকে যা এন্টি-অক্সিডেন্টসমৃদ্ধ। এই এন্টি-অক্সিডেন্ট তৈলাক্ত বীজকে বাতাসের অক্সিজেন থেকে রক্ষা করে ফলে তা খাওয়ার উপযোগী থাকে। 

আমাদের ব্রেইনের সাথে আখরোটের কিছুটা মিল রয়েছে। আখরোটকে ব্রেইন ফুডওবলা হয়ে থাকে। আখরোট বাদামের বিস্ময়কর গুণগুলো অনেকের অজানা। যুক্তরাষ্ট্রের গবেষকদের মতে, চীনা বাদাম, কাজু বাদাম, পেস্তা ও অন্যান্য বাদামের চেয়ে আখরোটের পুষ্টিগুণ বেশি।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়: 
আখরোটে বিদ্যমান অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। বার্ধক্য, ক্যান্সার এবং স্নায়বিক রোগও প্রতিরোধ করে আখরোট।

ত্বক উজ্জ্বল করে:
আখরোটের ওমেগা-৩ দেহের ত্বককে উজ্জ্বল করে। আদ্রতা ধরে রাখে এবং পুষ্টি যোগায়। ত্বকের জন্য ক্ষতিকর কোষকে ধ্বংস করে আখরোট।

গর্ভাবস্থা:
এই বাদামে আছে ভিটামন বি এর উপাদান ফোলেট, রিবোফ্লাবিন এবং থায়ামিন। যা গর্ভবতী নারীদের জন্য আদর্শ খাবার। কপার এবং অন্যান্য খনিজ পদার্থ।

কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে: 
কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করার ওষুধ হিসেবেও আখরোট খাওয়া যেতে পারে।
 
চুলের জন্য উপকারী: 
আখরোট চুলের জন্য একটি ভালো খাবার। এতে আছে চুলকে শক্তিশালী করার উপাদান বায়োটিন। বায়োটিনের অভাবে চুল পড়ে এবং চুলের আগা ফেটে যায়। আখরোট চুল পড়া কমায় এবং চুলের বৃদ্ধি নিশ্চিত করে।
 
ওজন কমায়: 
আখরোট একটি নিম্ন কোলেস্টেরলযুক্ত সুস্বাদু খাবার, যা ওজন কমায়। তবে উচ্চ মাত্রার ক্যালরি থাকার কারণে ওজন কমানোর জন্য পরিমিত পরিমাণে আখরোট খাওয়া জরুরি।

নি এম/