eibela24.com
শনিবার, ১৭, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
কলকাতাকে হারিয়ে ফাইনালে হায়দরাবাদ
আপডেট: ০৯:৪১ am ২৬-০৫-২০১৮
 
 


গত কয়েক বছর কলকাতা নাইট রাইডার্সের অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে ছিলেন সাকিব আল হাসান। কিন্তু চলতি আইপিএলে বাংলাদেশ সেরা এই ক্রিকেটারকে ছেড়ে দেয় শাহরুখ খানের দলটি। অথচ সেই সাকিবদের বিপক্ষে হেরেই আইপিএলের শিরোপার লড়াই থেকে বাদ পড়ে গেলো কালকাতা। পূর্ব পরিচিত সেই কলকাতাকে ১৩ রানে হারিয়ে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে সাকিবদের হায়দরাবাদ।

শুক্রবার আইপিএলের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে মুখোমুখি হয় হায়দরাবাদ ও কলকাতা। কলকাতার ইডেন গার্ডেনে সানরাইজার্সের করা ১৭৪ রানের জবাবে নাইট রাইডার্স থেমেছে ১৬১ রানে।  ১০ বলে ৩৪ রানের তাণ্ডব চালানো রশিদ বল হাতে ১৯ রানে নিয়েছেন ৩ উইকেট।

আগামী রবিবার মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড় স্টেডিয়ামে ফাইনালে মহেন্দ্র সিং ধোনির চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে লড়বে হায়দরাবাদ।

টার্গেট তাড়া করতে নেমে ৯ উইকেটে ১৬১ রানে থেমে যায় কলকাতার ইনিংস। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৮ রান করেন ওপেনার ক্রিস লিন। এছাড়া ৩০ রান করেন শুভম গিল।

শুক্রবারও হায়দরাবাদের মিডল অর্ডারের ব্যর্থতার দিনে সেই রশিদ খানই অবিশ্বাস্য এক ইনিংস খেললেন। মাত্র ১০ বলে ৩৪ রানের ইনিংস। এমন ঝড়ো ইনিংসের আগে একজন লেগ স্পিনারের কাছে কখনও প্রত্যাশা করেছিলেন?

দুই চার আর চারটি নান্দনিক ছক্কায় সাজানো তার ইনিংসটি আজকের আইপিএলের টক অব দ্য নিউজে পরিণত হয়েছে।

তার অনবদ্য ইনিংসের কল্যাণে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৭৪ রান সংগ্রহ করেছে হায়দরাবাদ। এর মধ্যে শুধু শেষ ওভারেই আসে ২৪ রান। এর সব কৃতিত্বই রশিদ খানের।

এর আগে বাংলাদেশের সাকিব আল হাসান ২৮ রান করে দুর্ভাগ্যজনক রান আউট হয়ে ফিরে যাওয়ার পর একে একে বিদায় নেন ইউসুফ পাঠান, দীপক হুদাসহ নির্ভরযোগ্য সব ব্যাটসম্যানরা।

নি এম/