eibela24.com
বুধবার, ১৪, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
মামলা করায়
নান্দাইলে সংখ্যালঘু মহিলা-তরুণীদের অপহরণের হুমকি
আপডেট: ০৯:২৭ am ০২-০৬-২০১৮
 
 


ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার চন্ডীপাশা ইউনিয়নের শাইলধরা বাজারে সংখ্যালঘু দলিত সম্প্রদায়ের ২০টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে হামলা ভাঙচুর ও লুটপাট চালিয়ে মিনি ট্রাকযোগে মালামাল নিয়ে যাবার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে থানায় এজাহার দায়ের করায় আসামীরা ক্ষিপ্ত হয়ে সংখ্যালঘুদের বাড়িঘরে হামলা ও মহিলাদের তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দিয়েছে।

জানা যায়, চন্ডীপাশা ইউনিয়নের শাইলধরা বাজারে রমেশ রবিদাস, সুমন রবিদাস, কুবলালের ৮ শতাংশ (শতক) জমি দখলে নেওয়ার জন্য স্থানীয় নিজবানাইল গ্রামের হারুন আকন্দ, কাইয়ূম আকন্দ, খোকন আকন্দ, কাজল, রফিক আকন্দ, দুলাল, সবুজ, দেলোয়ার আকন্দ, জমসেদ খা ও ফারুক আকন্দগংরা দীর্ঘদিন যাবত চেষ্টা চালিয়ে আসছে। ২৩ মে রাতে ওই প্রভাবশালীচক্র আরও ৩০/৪০জন সন্ত্রাসী নিয়ে সংখ্যালঘুদের ২০টি দোকান ভাংচুর করে মাটির সঙ্গে মিশিয়ে দেয় এবং কয়েক লক্ষ টাকার মালামাল লুটপাট করে ক্ষতি সাধন করে। এ সময় একটি ফার্ণিচারের দোকানের মালামাল মিনি ট্রাকযোগে লুটপাট করে নিয়ে যায় হামলাকারীরা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সারারাত অবস্থান করে। উক্ত ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ কুবলাল রবি দাসের ছেলে সুমন রবি দাস বাদী হয়ে নান্দাইল মডেল থানায় ১০ জনের নাম উল্লেখসহ একটি এজাহার দায়ের করেছেন।

এদিকে ঘটনার পর থেকে সংখ্যালঘু দলিত সম্প্রদায়ের লোকজন পরিবার পরিজন নিয়ে চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। হামলাকারীরা দোকানপাট ভাঙ্গার পর এবার বাড়ি-ঘরে হামলা এমনকি মহিলা ও যুবতী মেয়েদেরও উঠিয়ে নেয়ার হুমকি দিচ্ছে বলে জানান ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলোর সদস্যরা।

বিডি