eibela24.com
বুধবার, ১৯, সেপ্টেম্বর, ২০১৮
 

 
কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় পুড়িয়ে দেওয়া হলো বসতঘর 
আপডেট: ১১:৪৩ am ১৯-০৬-২০১৮
 
 


মৌলভীবাজার জেলার কুলাউড়ার এক দিনমজুরের স্ত্রী কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তাদের বসতঘর পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এমন অভিযোগ ক্ষতিগ্রস্তে শিকার ওই গৃহবধূর। 
রবিবার (১৭ জুন) রাতে উপজেলার পৃথিমপাশা ইউনিয়নের গনকিয়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গৃহবধূর স্বামী পেশায় একজন  দিনমজুর।

জানা যায়, দিনমজুরের স্ত্রীকে সোনা মিয়া (৩৫) নামের প্রতিবেশী এক যুবক বেশ কিছুদিন ধরে উত্ত্যক্ত করছেন। স্বামী কাজে বাইরে চলে গেলে একাধিকবার ওই যুবক বাড়িতে এসে গৃহবধূকে কু-প্রস্তাব দেয়। গৃহবধূ তা প্রত্যাখান করেন। এ ব্যাপারে দিনমজুর বিচারপ্রার্থী হওয়ায় স্থানীয়ভাবে সালিশও হয়। 

এদিকে ঈদ উপলক্ষে রবিবার (১৭ জুন) সকালে দিনমজুর তার স্ত্রী-সন্তানদের নিয়ে একই এলাকায় শ্বশুরবাড়িতে বেড়াতে চলে যান। ওই দিন রাত চারটার দিকে প্রতিবেশীরা দিনমজুরের মাটির দেয়াল ও টিনের চালার ঘরটিতে দাউ দাউ করে আগুন জ্বলতে দেখেন। খবর পেয়ে দিনমজুর ও তার পরিবারের সদস্যরা বাড়িতে ছুটে যান। এলাকাবাসী পানি ঢেলে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে এর আগেই ঘরের সব মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়। 

কুলাউড়া ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট রওনা দিলেও দুর্গম এলাকা হওয়ায় ঘটনাস্থলে পৌঁছাতে পারেনি। সোমবার (১৮ জুন) বিকেলের দিকে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শনে করেছে।

দিনমজুরের স্ত্রী বলেন, কু-প্রস্তাবে রাজি না হওয়াতে সোনা মিয়া আমার ঘরে আগুন লাগিছে। সে অনেক দিন থেকে আমাকে বাজে প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। আগুনে আমার নগদ ৭০ হাজার টাকা পুড়ে ছাই হয়ে গেছে।

দিনমজুর জানান, আগুনে আসবাবসহ ঘরের ভেতরে থাকা ১০-১২টি হাঁস-মোরগ পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে প্রায় এক লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে তিনি দাবি করেন।

কুলাউড়া থানার এস আই আবদুল খালেক জানান, ঘটনার সময় ওই বাড়িতে নাকি সোনা মিয়া আসছিল, এলাকার অনেকে জানিয়েছে। এ ঘটনায় সোনা মিয়া জড়িত বলে দিনমজুরের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগও করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে অভিযুক্ত সোনা মিয়া গৃহবধূর আনিত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। দিনমজুরের স্ত্রীকে কু-প্রস্তাব দেওয়ার অভিযোগটিও তিনি অস্বীকার করেন।

নি এম/