eibela24.com
রবিবার, ১৮, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
পাবনায় গাছচাপায় হিন্দু সহোদর শিশুর মৃত্যু
আপডেট: ০৯:৪৯ am ২৬-০৬-২০১৮
 
 


পাবনার সুজানগর পৌর এলাকার হালদারপাড়া মহল্লায় গাছচাপায় ঈশান হালদার(৭) ও রূপম হালদার(৮) নামের সহোদর শিশু মারা গেছে। 

সোমবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ঈশান হালদার ও রূপম হালদার সুজানগর হালদারপাড়ার বাসুদেব হালদারের ছেলে। তারা দুইজন সম্পর্কে কাকাতো ভাই ও সুজানগর মডেল প্রাইমারি স্কুলের প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্র ছিল। 
 
সুজানগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শরিফুল আলম বলেন, ওই দুই শিশু বাড়ির পাশে গাছের নীচে খেলা করছিল। এ সময় রাস্তার অপর পাশে সুজানগর পৌরসভার ঠিকাদার আব্দুল মান্নান ও আকরাম হোসেন ভেকু মেশিন দিয়ে রাস্তার গাছ কাটার সময় দুর্ঘটনাবশত এই ঘটনা ঘটে। ঘটনাস্থলেই শিশু ঈশান মারা যায় এবং মারাত্মক আহত অবস্থায় অপর শিশু রুপমকে প্রথমে সুজানগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে চিকিৎসকরা তাকে রাজশাহী রেফার্ড করে। পরে তাকে রাজশাহী নেওয়ার পথে রুপম মারা যায়। এ ঘটনায় হলদারপাড়ায় শোকের ছায়া নেমে আসে। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সুজানগর পৌর মেয়রের আস্থাভাজন মান্নান ও আকরাম সম্পূর্ণ অবৈধভাবে রাস্তার গাছ কাটছিল মাটি কাটার ভেকু মেশিন দিয়ে। এ সময় রাস্তার অপর পাশে ওই দুই শিশুকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে বলেও তারা অভিযোগ করেন। সত্যিকারেই যদি তারা ঠিকাদারই হয় তা হলে চোরের মতো করে গাছ কাটতো না। তারা ওই শিশুদের ওই স্থান থেকে সরিয়ে দিয়ে গাছ কাটতে পারতো বলেও দাবি তাদের। 

এ বিষয়ে সুজানগর পৌরসভার মেয়র আব্দুল ওয়াহাব বলেন, মান্নান ও আকরাম পৌরসভার ঠিকাদার, রাস্তার কাজের জন্য তারা গাছ কাটছিল। এটি একটি দুর্ঘটনা বলেও তিনি স্বীকার করেন। তবে ভেকু মেশিন দিয়ে কেন গাছ কাটা হল এবং শিশুদের কেন সরিয়ে দিয়ে গাট কাটা হয়নি জানতে চাইলে সে কোন সদুত্তর দিতে পারেন নাই। 

এ ঘটনায় সুজানগর থানায় শিশুদের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানা ওসি।  

নি এম/