eibela24.com
বৃহস্পতিবার, ২০, সেপ্টেম্বর, ২০১৮
 

 
নওগাঁয় দুই পক্ষের দ্বন্দ্বের শিকার জমির ফসল
আপডেট: ০৯:১৪ pm ২৮-০৬-২০১৮
 
 


নওগাঁর বদলগাছী উপজেলার বালুভরা ইউনিয়নের পালশা গ্রামে দুই পক্ষের দ্বন্দ্বের শিকার হলো জমির ফসল। দ্বন্দ্বের জের ধরে রাতের আধাঁরে প্রায় ৩ বিঘা জমির পটল, মরিচ, লাউ ও কলা গাছ কেটে ফেলেছে এবং খড়ের পালায় আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে প্রতিপক্ষরা। এতে করে জমির মালিকের প্রায় লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। 

সোমবার দিবাগত রাতে এই ঘটনা ঘটেছে। দুই পক্ষের মধ্যে জমি নিয়ে দীর্ঘদিন যাবত দ্বন্দ্ব চলে আসছে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা। 

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, পালশাগ্রামের আক্কাছ আলী মন্ডলের ছেলে আব্দুর রহমান, মৃত-কেরামত আলীর ছেলে আব্দুর গফুর ও আফছার আলীর ছেলে এরশাদুল ইসলাম পৈতিক সূত্রে পাওয়া জমিগুলো দীর্ঘদিন যাবত ভোগদখল করে আসছে। আব্দুর রহমান ও তার পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা অংশীদার ভিত্তিতে ওই গ্রামের মৃত-আরাম আলী মন্ডলের কাছ থেকে জমির ভাগ কম পেয়ে আসছে বলে তাদের অভিযোগ। দীর্ঘদিন যাবত তাদেরকে জমির সমান ভাগ বুঝিয়ে না দেওয়ার কারণে রবিবার আব্দুর রহমানরা মাঠের অন্য ফাঁকা জমি দখল করে নেয়। এর রেশ ধরে গত সোমবার দিবাগত রাতে আব্দুর রহমানদের জমির ফসল হিসাবে কে বা কাহারা জমির পটল, মরিচ, লাউ ও কলাগাছ গুলো কেটে ফেলেছে এবং খড়ের পালায় আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে। ওই জমির ফসলের মালিকানা দাবী করে মৃত-আরাম আলী মন্ডলের ছেলে ফারুক হোসেন মঙ্গলবার বদলগাছী থানায় আব্দুর রহমানরা রাতের আঁধারে ওই জমির ফসলগুলো পূর্বের শত্রুতার জের ধরে কেটে ফেলেছে মর্মে অভিযোগ দায়ের করেছেন। এই অভিযোগের ভিত্তিতে থানা পুলিশ জমির মালিকানা নির্ধারন না হওয়া পর্যন্ত দুই পক্ষকেই জমিতে না নামার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। আর জমির মালিকানা নিয়ে দফায় দফায় উভয় পক্ষের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়ে আসছে। এমতাবস্থায় যে কোন সময় এই জমি নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশঙ্কা করছেন এলাকাবাসী। 

আব্দুর রহমান বলেন, বাপ-দাদার আমল থেকে আমরা এই জমিগুলো ভোগদখল করে আসছি। দীর্ঘদিন যাবত আমাদের পাওনা জমি না পাওয়ার কারণে আমরা অংশীদার হিসাবে মাঠের ফাঁকা জমি দখল করেছি। আর এই কারণেই আরাম আলী মন্ডলের ছেলেরা আমাদের চাষ করা জমির ফসলগুলো রাতের আঁধারে কেটে ফেলে উল্টো আমাদের কাঁধেই দোষ চাপিয়ে দিচ্ছে। আমরা গরীব-অসহায় বলে তারা আমাদের কাঁধে মিথ্যা দোষ চাপিয়ে দিচ্ছে। তারা আমাদেরকে প্রাণ নাশের হুমকি-ধামকি প্রদান করাও অব্যাহত রেখেছে। দ্বন্দ্ব থাকলে আমাদের সঙ্গে আছে জমির ফসল কি অপরাধ করেছে। আমরা এর উপযুক্ত বিচার চাই। 
ফারুক হোসেন বলেন, আমরা এই জমিতে ফসল চাষ করেছি। পূর্বের শত্রুতার জের ধরে আব্দুর রহমানরা আমাদের জমির ফসলগুলো রাতের আঁধারে কেটে ফেলে আমাদের ওপর দোষ চাপিয়ে দিচ্ছে। আমাদের জমির ফসল কেটে ফেলেছে তাই তাদের বিরুদ্ধে আমরা আইনের আশ্রয় নিয়েছি। আইনই সমাধান করে দেবে জমিগুলোর মালিক কারা।

স্থানীয় বালুভরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আইন উদ্দিন বলেন, বিষয়টি লোক মুখে শুনেছি। কোন পক্ষই এখনো পর্যন্ত আমার কাছে কোন লিখিত অভিযোগ করেনি। উভয়পক্ষ যদি বিষয়টির সমাধান চায় তাহলে বসে বিষয়টি সমাধান করে দেওয়া হবে।  

বদলগাছী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জালাল উদ্দিন বলেন, এই বিষয়ে এক পক্ষের কাছ থেকে একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি স্থানীয় ভাবে সমাধান করার জন্য স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে দায়িত্ব দিয়েছি। আর উভয় পক্ষ যদি চায় বিষয়টি আমরা বসে সমাধান করে দিবো।

এমসি/বিডি