eibela24.com
বুধবার, ২১, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
নিরাপদ ক্যাম্পাস দাবি
ঢাবিতে শিক্ষার্থীদের মারধর ও শিক্ষক লাঞ্ছনার প্রতিবাদে মানববন্ধন
আপডেট: ০৫:০৭ pm ১৮-০৭-২০১৮
 
 


কোটা সংস্কার আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা ও শিক্ষক লাঞ্ছনার প্রতিবাদে রাজধানীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বুধবার সকালে মানববন্ধন করেছেন ঢাবি শিক্ষার্থীরা।  

মানববন্ধনে উপস্থিত অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক সহকারী অধ্যাপক ড. রুশাদ ফরিদী বলেন, গত সমাবেশে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলার পর শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসে নিরাপত্তাহীনতা বোধ করছেন। অথচ এর আগে ছাত্ররা ক্যাম্পাসে নিরাপদে বিভিন্ন আন্দোলন করত। আজকের এই মানববন্ধন প্রমাণ করে, শিক্ষার্থীরা ত্রাসের রাজত্ব ভেঙে প্রতিবাদ করতে শিখেছে। ভবিষ্যতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের এই প্রতিবাদের ফলে আরো শিক্ষার্থীরা আসবে।

মানববন্ধনে শিক্ষার্থীরা বলেন, কোটা সংস্কার আন্দোলনের যৌক্তিক দাবি সত্ত্বেও শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগ হামলা করেছে। এমনকি শিক্ষকদের ওপরেও তারা হামলা করে। এসব ব্যাপারে বিচার চাইতে গেলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নিশ্চুপ থাকছে। কিন্তু আমরা আমাদের প্রতিবাদ কর্মসূচি অব্যাহতভাবে পালন করব। এবার যদি ছাত্রলীগ হামলা চালায়, তবে তাদের শক্তভাবে প্রতিহত করা হবে।

ছাত্রলীগের চলমান সহিংস কার্যকলাপ প্রসঙ্গে সমাজবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী নাহিদ ইসলাম বলেন, ছাত্রলীগ সরকারের ওপর মহলের কথায় শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা করছে। এর বিচার চাইতে গেলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন বলছে, শিক্ষার্থীরা সমাবেশ করতে অনুমতি নেয়নি কেন? আমরা কার কাছে বিচারের দাবি জানাব? এর বিচার করার কেউ নেই। আমরা আন্দোলনের মাধ্যমে এর প্রতিবাদ জানাব। আমাদের প্রতিবাদ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, কোটা সংস্কার আন্দোলনে গ্রেপ্তারকৃত শিক্ষার্থীদের আইনি প্রক্রিয়ায় গ্রেপ্তার করা হয়নি। কিন্তু ঢাবি প্রশাসন এতে নিশ্চুপ। আমরা প্রশাসনের কাছে তাদের গ্রেপ্তারের কারণ জানতে চাই।

মানববন্ধনে তিন দফা দাবি তুলে ধরেন শিক্ষার্থীরা। দাবিগুলো হলো ক্যাম্পাসে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলায় জড়িতদের চিহ্নিত করে শাস্তি প্রদান, কোটা সংস্কার আন্দোলন করতে গিয়ে গ্রেপ্তারকৃতদের গ্রেপ্তারের কারণ দর্শানো ও তাঁদের মুক্তি এবং ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।

বিডি