eibela24.com
মঙ্গলবার, ২০, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের ষষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী আজ
আপডেট: ০৩:৫৪ pm ১৯-০৭-২০১৮
 
 


স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশের সবচেয়ে পাঠকনন্দিত লেখক হুমায়ূন আহমেদের ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ২০১২ সালের ১৯ জুলাই নিয়ইয়র্কের হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন নন্দিত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ। ২৪শে জুলাই চিরনিদ্রায় শায়িত হন তার নিজ হাতে গড়া গাজীপুরের নুহাশপল্লীর লিচুতলায়। ভক্ত-অনুরাগীরা নানান আয়োজনে বাংলা সাহিত্যের জনপ্রিয় লেখককে স্মরণ করছে।

বাবা শহীদ ফয়জুর রহমান আহমেদ ও মা আয়শা ফয়েজের ঘর আলো করে ১৯৪৮ সালের ১৩ নভেম্বর নেত্রকোনায় জন্মগ্রহন করেন হুমায়ুন। পড়াশোনা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও যুক্তরাষ্ট্রের নর্থ ডাকোটা স্টেট ইউনিভার্সিটিতে। রসায়ন শাস্ত্রের শিক্ষক হিসেবে দীর্ঘদিন অধ্যাপনা করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে।

কালজয়ী উপন্যাস ‘নন্দিত নরকে’ ও ‘শঙ্খনীল কারাগারের’ মধ্য দিয়ে বাংলা সাহিত্যে শক্তিশালী এক কথাসাহিত্যিকের আগমনী জানিয়েছিলেন তিনি। তার প্রকাশিত সাহিত্যকর্ম তিন শতাধিক। গল্প বলার এক নতুন ধারায় তার সব গল্প-উপন্যাসই যেমন জনপ্রিয় তেমনি জনপ্রিয়তা পেয়েছে হিমু, মিসির আলী, বাকের ভাই ও রূপার মতো অসাধারণ সব চরিত্র।

এক সময় সাহিত্যচর্চার পাশাপাশি মনোনিবেশ করেন চলচ্চিত্র ও নাটক নির্মাণে। কোথাও কেউ নেই, শঙ্খনীল কারাগার, আগুনের পরশমণি, দুই দুয়ারি, শ্রাবণ মেঘের দিন, ঘেঁটুপুত্র কমলা তার সৃষ্টিকর্মের মধ্যে উল্লেখযোগ্য।

কর্মসূচি : হুমায়ূন ভক্তদের গড়া হিমু পরিবহন নামের সংগঠনের পক্ষ থেকে লেখকের মৃত্যুবার্ষিকীতে নেয়া হয়েছে নানা কর্মসূচি। সকাল ৬টা ৪৫ মিনিটে শাহবাগের জাতীয় জাদুঘরের সামনে থেকে হলুদ পাঞ্জাবি, নীল শাড়ি পরে হিমু, রূপা, মিসির আলী, শুভ্র, বাকের ভাই, মাজেদা খালারা একসঙ্গে গাজীপুরের নুহাশ পল্লীর উদ্দেশে রওনা হবেন। নুহাশ পল্লীর যাত্রা পথে সাধারণ মানুষের মাঝে ক্যান্সার সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ করবে হিমু পরিবহন।

এ ছাড়া দেশের ৪০টি জেলায় হিমু পরিবহনের সদস্যরা বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্য দিয়ে এই কথাসাহিত্যিককে স্মরণ করবে। এর মধ্যে রয়েছে- দোয়া মাহফিল, বৃদ্ধাশ্রম ও এতিমদের খাবার খাওয়ানো, বৃক্ষরোপণ, রচনা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, হুমায়ূন আহমেদের সিনেমা প্রদর্শনী, আলোচনা সভা, সেমিনার ও ক্যান্সার সচেতনতামূলক লিফলেট বিতরণ।

এ ছাড়া আজ রাজধানীর বিভিন্নস্থানে মৃত্যুবার্ষিকী পালন করবে তার ভক্ত, সুহৃদ, শুভাকাক্সক্ষী ও স্বজনরা।

নি এম/