eibela24.com
বৃহস্পতিবার, ২২, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
‘ওই বেটা চিফ জাস্টিস দেশ ছাইড়া গেছো, ঘুষখোর একটা’ : মোজাম্মেল হক
আপডেট: ০৪:৩৮ pm ০৮-০৮-২০১৮
 
 


সাবেক প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এস কে) সিনহা চোর, দুর্নীতিবাজ ও ঘুষখোর ছিলেন বলে মন্তব্য করেছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক। তাকে দেশে ফিরিয়ে এনে বিচার করারও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার বিকালে টাঙ্গাইলে জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এসকে সিনহাকে উদ্দেশ করে আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, ‘... তার বিচার দেশে আইনা করতে হবে। ওই বেটা চিফ জাস্টিস দেশ ছাইড়া গেছো। চোর, দুর্নীতিবাজ, ঘুষখোর একটা!’

‘প্রধান বিচারপতির আসন কলঙ্কিত করে গেছে। ওকে ছেড়ে দেয়া হবে না। ওর আইন দিয়াই ওকে ধরতে হবে। কী মনে করেছে তারা?’ হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

এসময় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, দেশে কয়েকদিন আগে কোমলমতী শিক্ষার্থীরা যে আন্দোলন করেছে তা যুক্তিসঙ্গত। তবে আন্দোলনের সময় দুর্বৃত্তরা যে হামলা চালিয়েছে তাদের আইনের আওতায় এনে বিচার করা হবে।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। তারই ধারাবাহিকতায় বঙ্গবন্ধু হাসপাতালসহ দেশের বড় বড় হাসপাতালে ১৫ লাখ টাকা ও জেলা এবং উপজেলা পর্যায়ের হাসপাতালগুলোকে ১ লাখ টাকা করে অগ্রিম দেয়া হবে মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসার জন্য।

মোজাম্মেল হক বলেন, এই টাকাগুলো অগ্রিম দেয়া হবে। মুক্তিযোদ্ধাদের শতভাগ চিকিৎসার খরচ সরকার বহন করবে। আগামী ১৫ আগস্ট এই প্রকল্পটি উদ্বোধন করা হবে।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বিচার হলেও যারা বঙ্গবন্ধুকে হত্যার জন্য পরিকল্পনা করেছিল তাদের বিচার এখনো করা হয়নি। মোশতাক ও জিয়ার মত বড় খুনিদের বিচার করা হয়নি। তাদের বিচার না করা হলে বঙ্গবন্ধুর আত্মা অনেক কষ্ট পাবে।

এছাড়া মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে যারা কথা বলে সেই জামায়াত-শিবিরের নিবন্ধন বাতিল করা হবে। জামায়াত-শিবিরের সন্তানেরা যাতে করে কোনো ধরনের সরকারি চাকুরি না পায় সেই লক্ষ্যে প্রয়োজনী প্রদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।’

টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক খান মো. নুরুল আমিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব মইনুল ইসলাম, টাঙ্গাইলের পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার খন্দকার জহুরুল হক ডিপটি, ফজলুল হক বীরপ্রতিক, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খোরশেদ আলম, জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আনিছুর রহমান, গণপূর্তের নির্বাহী প্রকৌশলী শম্ভুরাম পাল প্রমুখ।

নি এম/শশাংক দাস দীপ্ত