eibela24.com
বুধবার, ১৪, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
মৃত স্কুলছাত্রীকে জড়িয়ে পড়ে আছে নিথর যুবক
আপডেট: ১০:২৬ am ০৯-০৯-২০১৮
 
 


রক্তে লাল স্কুলড্রেস পরা ছাত্রীর লাশ। তাকে জড়িয়ে নিথর অবস্থায় পড়ে আছে রক্তাক্ত আরেক যুবক। দুজনের শরীরেই ছুরির আঘাত। 

শনিবার বিকেলে এই হৃদয়বিদার ঘটনাটি ঘটেছে চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার দক্ষিণ ভূর্ষি ইউনিয়নের বেলতল রেললাইনের পাশে। বেলা সাড়ে ৪টার দিকে তাদের উদ্ধার করতে যায় পটিয়া থানা পুলিশ। নিথর দেহ দেখে প্রথমে মনে হয়েছিল দুজনেই মৃত। কিন্তু দেখা গেল যুবকের প্রাণ এখনো আছে।

দ্রুত তাকে পাঠানো হয় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। পটিয়া থানার এসআই আলমগীর হোসেন বলেন, যুবকের দেহ নড়াছাড়ার সময় গোঙানীর শব্দ কানে আসে। তার পেটে ছুরির আঘাত রয়েছে। তবে স্কুলছাত্রীর পেটে একাধিক ছুরিকাঘাত। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বিষয়টি প্রেমঘটিত। 

ঘটনাটির তদন্তের দায়িত্ব পেয়ে মাঠে নেমেছেন পটিয়া থানার এসআই আলমগীর হোসেন। তিনি বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে বিষয়টি প্রেমঘটিত। তবে এর পেছনে অন্য কোনা হাত আছে কিনা তা জানতে ছেলেটি সুস্থ্ হয়ে ওঠা পর্যন্ত অপেক্ষায় থাকতে হবে।

এরই মধ্যে পুলিশ তাদের পরিচয় উদ্ধার জানতে পেরেছে জানিয়ে তদন্ত কর্মকর্তা বলেন, মৃত কিশোরীর নাম রিমা আকতার (১৩)। সে উপজেলার পূর্ব হাইদগাঁও গ্রামের মাহদাম পাড়ার মঞ্জুরুল আলমের কন্যা। সে হাইদগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর ছাত্রী বলে জানা গেছে। আর মারাত্মক আহত যুবকের নাম নজরুল ইসলাম মাসুদ (২২)। সে পৌর এলাকার উত্তর গোবিন্দারখীল গ্রামের (ফইল্ল্যাতলী) মৃত আবুল কালামের পুত্র।

পটিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শেখ মোহাম্মদ নেয়ামত উল্লাহ বলেন, ঘটনাটি প্রেমঘটিত নাকি অন্যকিছু। তা দুই পরিবারের সঙ্গে কথা বললে জানা যাবে।

ওসি আরো জানান, আহত নজরুল ইসলাম মাসুদ চমেক হাসপাতালের ১৯ নম্বর ওয়ার্ডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জানা গেছে। তার গলায়ও ধারালো ছুরির আঘাত থাকায় অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তার অবস্থাও আশঙ্কাজনক বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।

নি এম/