eibela24.com
শুক্রবার, ১৬, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
সর্দার প্যাটেলের সর্বোচ্চ মূর্তি বানাচ্ছেন ৯২ বছরের শিল্পী রাম ভি সুতার
আপডেট: ০৯:০২ pm ১০-০৯-২০১৮
 
 


প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ‘ঐক্যের মূর্তি’ উন্মোচন করবেন ৩১ অক্টোবর। সর্দার বল্লভভাই প্যাটেলের এই মূর্তি বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু মূর্তি হতে চলেছে। মূর্তি স্থাপনের কাজ ৮৫ শতাংশেরও বেশি শেষ হয়ে গিয়েছে ইতিমধ্যেই। নর্মদা নদীর কাছাকাছি সর্দার সরোবর বাঁধের কাছে স্থাপিত হচ্ছে এই বিশাল মূর্তিটি। এখন চলছে মূর্তিতে মাথা বসানোর কাজ। কিন্তু এই বিশাল শিল্পের নৈপুণ্যের পিছনে শিল্পী রাম ভি সুতার।  রাম ভি সুতার পদ্মভূষণ সম্মানপ্রাপ্ত ৯২ বছর বয়সী এই কারিগর তৈরি করেছেন এই মূর্তিটি। এর আগেও শত শত মূর্তি তৈরি করেছেন রাম। ভারতের সংসদ ভবনে অবস্থিত মহাত্মা গান্ধীর মূর্তিটিও তাঁরই তৈরি।
 
মহাত্মা গান্ধীর থেকেই অনুপ্রাণিত শিল্পী রাম ভি সুতার। সংসদ ভবন চত্বরে অবস্থিত মহাত্মা গান্ধীর ১৭ ফুট উঁচু মূর্তিটিও তিনিই তৈরি করেন। পাশাপাশি, পাটনার গান্ধী ময়দানে, কর্ণাটক বিধানসভায় থাকা গান্ধী মূর্তিও তাঁরই তৈরি। ৩০০ টিরও বেশি দেশে তাঁর নির্মিত গান্ধী মূর্তি রয়েছে।

রাম ভি সুতারের তত্ত্বাবধানে, চীনে এই মূর্তিটির ঢালাই করা হয়েছে। এবং এক একটি গুজরাটে আনা হয়েছে। এখন শুরু হয়েছে মূর্তিটির স্থাপনা। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ৩১ অক্টোবর মূর্তিটি উন্মোচন করবেন।

রাম ভি সুতারের মতে, চারটি ধাতুকে এই মূর্তি তৈরির কাজে ব্যবহার করা হয়েছে। তামার সঙ্গে জিংক, সীসা এবং টিন দিয়ে তোরি এই মূর্তি হাজার হাজার বছরেও নষ্ট হবে না ধুলো, সূর্যালোক, বৃষ্টির কোনও প্রভাব থাকবে না, জংও ধরবে না।

‘ঐক্যের মূর্তি’র মোট ওজন ১৭০০ টন এবং উচ্চতা ৫২২ফুট বা ১৮২মিটার। মূর্তির পায়ের উচ্চতা ৮০ ফুট, হাতের উচ্চতা ৭০ ফুট, কাঁধের উচ্চতা ১৪০ ফুট এবং মুখের উচ্চতা ৭০ ফুট।

রাম ভি সুতার বর্তমানে মুম্বাইয়ের সমুদ্রে স্থাপিত হতে চলা শিবাজীর মূর্তির নকশা প্রস্তুত করছেন। মহারাষ্ট্র সরকার জানিয়েছে যে, শিবাজীর মূর্তিটি ‘ঐক্যের মূর্তি’কেও ছাপিয়ে যাবে এবং বিশ্বের সব থেকে উঁচু মূর্তি হবে। গত বছর, অমৃতসরের যুদ্ধ মেমোরিয়ালে স্থাপিত হওয়া বিশ্বের সব থেকে বড় তরোয়ালটিও নির্মাণ করেছিলেন তিনিই।

২০১৬ সালে সরকার কর্তৃক পদ্ম ভূষণ সম্মানে ভূষিত করা হয় রাম ভি সুতারকে। এর আগে তিনি ১৯৯৯ সালে পদ্মশ্রী সম্মানও পেয়েছিলেন তিনি। এছাড়াও, বোম্বে আর্ট সোসাইটির তরফে লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট পুরষ্কারেও সম্মানিত করা হয় তাঁকে।

নি এম/