eibela24.com
বুধবার, ১৪, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
কঙ্গোতে ইবোলায় আক্রান্ত হয়ে ৬৯ জনের প্রাণহানি
আপডেট: ০৩:৫০ pm ২৬-০৯-২০১৮
 
 


গণতান্ত্রিক প্রজাতন্ত্র কঙ্গোর উত্তর-পূর্বাঞ্চলে প্রাণঘাতী রোগ ইবোলায় আক্রান্ত হয়ে ৬৯ জনের প্রাণহানি ঘটেছে বলে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সংবাদমাধ্যম সিএনএনে প্রকাশিত প্রতিবেদন থেকে জানা যায়, গত সোমবার কঙ্গোর স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এক প্রতিবেদনে ইবোলায় এই প্রাণহানির খবর জানায়। এ ব্যাপারে ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন (ডব্লিউএইচও) নিজেদের উদ্বেগ প্রকাশ করেছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানায়, সম্ভাব্য দেড়শ জনের মধ্যে ১১৯ জনের ইবোলায় আক্রান্ত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে। বাকি ৩১ জনও ইবোলায় আক্রান্ত হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এর বাইরে আরো ৩১ ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে, তারাও ইবোলায় আক্রান্ত হয়ে থাকতে পারে। সব মিলিয়ে মৃতের সংখ্যা একশ ছাড়িয়ে গেছে। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, ৪১ ব্যক্তি এ ব্যাধি থেকে সেরে উঠেছেন।

ডব্লিউএইচওর জরুরি তৎপরতা বিভাগের উপমহাপরিচালক পিটার সালামা বলেন, ‘আমরা একশ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু অতিক্রম করেছি। বেশ কিছু বড় বিপত্তি এই জরুরি পরিস্থিতিকে বাধাগ্রস্ত করছে।’  

দুই মাস আগে দেশটির উত্তর কিভু অঞ্চলে প্রাণঘাতী ইবোলা ছড়িয়ে পড়ে। ওই এলাকায় একশরও বেশি সশস্ত্র বিদ্রোহী আছে। তাদের কারণেও মারাত্মকভাবে ইবোলা প্রতিরোধ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে।

পিটার সালামা আরো বলেন, ‘আসন্ন কয়েক সপ্তাহ বা মাসের মধ্যে একাধিক বিপত্তির ফলে ভয়াবহভাবে ইবোলা ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আমরা গভীরভাবে উদ্বিগ্ন। সরাসরি সংঘর্ষের আশঙ্কা সাধারণ মানুষের কাছে আমাদের পৌঁছাতে দিচ্ছে না। দশকের পর দশক হত্যা আর সহিংসতায় আতঙ্কগ্রস্ত সাধারণ জনগণের একটি অংশের মধ্যে অবিশ্বাস কাজ করছে। আসন্ন নির্বাচনের আগে আগে তারা নানাভাবে বিভিন্ন গোষ্ঠী দ্বারা ব্যবহৃত হচ্ছে।’ জনসাধারণের একটি অংশ নানা কুসংস্কার ও অনাস্থার কারণে চিকিৎসা নিতে অস্বীকৃতি জানাচ্ছে বলেও উল্লেখ করেন সালামা।

এসব কারণে শুধু কঙ্গোতেই নয়, উগান্ডার সীমান্তবর্তী এলাকাতেও ইবোলা ছড়িয়ে পড়ছে। এ দেশটিও এখন হুমকির মুখে রয়েছে।

নি এম/