eibela24.com
রবিবার, ১৮, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
মাদারীপুরে পূর্বশত্রুতার জেরে হামলা; গুরুতর আহত ১ 
আপডেট: ০২:৫২ am ১৪-০৭-২০১৬
 
 


মাদারীপুর প্রতিনিধি: মাদারীপুর সদর উপজেলার কালিকাপুর ইউনিয়নের পূর্ব কালিকাপুর গ্রামে বুধবার রাত সাতটায় সময় পূর্বশত্রুতার জেরে দুই পক্ষের লোকজন মধ্যে অমানুষিক সংঘর্ষ শুরু হয়। দু-পক্ষের হামলায় ১০ জনকে আহত অবস্থায় সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।  

হামলার ঘটনা সূত্রে জানা যায়, মৃত রতন তালুকদারের ছেলে মো. জান্টু তালুকদার (৩০) উপর তার প্রতিপক্ষ মো. দেলোয়ার খান নেতৃত্বে কামরুল গাছী, নজরুল তালুকদার, রফিক তালুকদার, রুমেল তালুকদারসহ তাদের পক্ষের লোকজন উপর অতারর্কিত অমানুষিক হামলা করে শুরু করে। তার চিৎকারে আশেপাশের ও পরিবারের লোকজন এসে গুরতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। 

এলাকাবাসী ও আহত জান্টুর ভাই রিন্টু তালুকদার জানান, পূর্বে থেকে আমাদের পরিবারের লোকজনকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিয়ে আসছিল হামলাকারীরা, ঘটনার দিন কামরুল গাছীর মেয়ে রুনা আক্তার (১৯) আমাদের ঘর থেকে মোবাইল ও টাকা চুরি করে নিয়ে যায়। এ ঘটনা যানাযানি হলে এলাকায় গণ্যমান্যরা মিটমাট করে দেওয়ার কথা বলে আমার ভাইকে ডেকে নেয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে পূর্বের পরিকল্পনা মোতাবেক আমার ভাইকে মেরেফেলার উদ্দেশ্যে ধারালো চাপাতি দিয়ে কোপাতে থাকে। ভাইয়ের চিৎকার শুনে এলাকার লোকজন তাকে মুমুষ্য অবস্থায় উদ্ধার করে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করি। 

আমার ভাই এখন মৃতুর সাথে পাঞ্জালরছে তার মাথার তালুতে, হাতে ও পায়ে কুপিয়েছে। আমার ভাই জান্টুকে পরিকল্পনা করে দেলোয়ার খার সন্ত্রাসী বাহিনীর, কামরুল গাছী, নজরুল তালুকদার, রফিক তালুকদার, রুমেল তালুকদার, গংরা যে গুরুতর আহত করেছে আমি এর দৃষ্টান্তমুলক শ^াস্তি ও বিচার দাবি করছি।

উক্ত হামলার ঘটনার ব্যাপারে কালিকাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও এঘটনার প্রতিপক্ষ মো. দেলোয়ার খান কাছে ঘটনার বিষয়ে মুঠো ফোনে যানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও হয়রানী মূলক। এখানে কোপাকুপির কোন ঘটনা ঘটে নাই শালিশির এক পর্যায় হাতাহাতি হয়েছে। তিনি আরো বলেন জান্টুকে কোপানো হয়েছে এলাকার কোন লোক তো জানেনা অথবা তারা নিজেরাই এ কান্ড করে হাসপাতালে নিয়ে যাইতেই পারে।

এইবেলা ডটকম/অজয়/এসবিএস