eibela24.com
বুধবার, ১৯, সেপ্টেম্বর, ২০১৮
 

 
শোক দিবস পালন করায় রামেক হাসপাতালের কর্মচারিকে নোটিশ
আপডেট: ০৮:১৪ pm ০১-০৯-২০১৬
 
 


রাজশাহী থেকে: বঙ্গবন্ধ শেখ মজিবুর রহমানের মৃত্যু বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন করায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের এক কর্মচারিকে কৈফিয়ত তলব করা হয়েছে। কৈফিয়ত তলব করার ঘটনাটি প্রকাশ পেয়ে গেলে মহানগর আওয়ামী লীগ ও রামেক হাসপাতালের অন্যান্য কর্মচারিদের মধ্যে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে। ওই কর্মচারির নাম মাসুদ রানা। তিনি ওয়ার্ড হিসাবে রামেক হাসপাতালে কর্মরত আছেন। এছাড়াও তিনি রামেক হাসপাতালের চতুর্থ শ্রেণী কর্মচারি ইউনিয়নের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন।

জানা গেছে, গত ১৫ আগষ্ট সারাদেশের ন্যায় রামেক হাসপাতালের কর্মচারি ইউনিয়নের সভাপতি মাসুদ রানা অন্যান্য কর্মচারিদের নিয়ে জাতীয় শোক দিবসে আলোচনা সভা ও কোরআন খতম এবং মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করেন। পরে বিষয়টি রামেক হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানতে পারেন তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেন। এরই প্রেক্ষিতে গত ২১আগষ্ট কৈফিয়ত তলব করে মাসুদ রানার কাছে নোটিশ পাঠান। রামেক হাসপাতালের সহকারী পরিচালক (প্রশাসন) স্বাক্ষরিত পত্রে বলা হয় কমিটির কার্যক্রম পরিচালনা সম্পর্কে আদালতে মামলা থাকা অবস্থায় ও পরিচালকের নিষেধাজ্ঞা সত্ত্বেও চতুর্থ শ্রেণী কর্মচারি উনিয়নের কার্যলয়ে কিছু সদস্যদের নিয়ে জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্ঠান করেন মাসুদ রানা। এই মর্মে কেন তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে জানতে চেয়ে দিন দিনের মধ্যে জবার চাওয়া হয় মাসুদ রানার কাছে।

কর্মচারি মাসুদ রানা জানান, আমি সদস্যদের ভোটে চতুর্থ শ্রেণী কর্মচারি ইউনিয়নের সভাপতি হয়েছি। কিন্তু কিছু কর্মচারি স্বার্থের লোভে আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছেন। তিনি বলেন আমি একজন এই হাসপাতালের কর্মচারি। আমার জাতীয় শোক দিবস ছাড়াও অন্যান্য কর্মসূচি পালন করার অধিকার রয়েছে। তিনি বলেন কৈফিয়ত তলবের পর আমি সভাপতি হিসাবে জবাব দিয়েছি।

বিষয়টি নিয়ে রামেক হাসপাতালের পরিচালক ও উপ-পরিচালক বেলাল উদ্দিনসহ কয়েকটি দপ্তরে যোগাযোগ করা হলেও তাদের পাওয়া যায়নি। এছাড়াও এসব কর্মকর্তাদের মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও ফোন রিসিভ না করায় মন্তব্য পাওয়া যায়নি।

 

এইবেলা ডটকম/অরুন/এজেডি