eibela24.com
সোমবার, ১৯, নভেম্বর, ২০১৮
 

 
সালথায় উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতাকে পেটালেন ওয়ার্ড নেতা
আপডেট: ০৬:২৫ pm ১১-১১-২০১৬
 
 


ফরিদপুর : ফরিদপুরের সালথা উপজেলা আওয়ামী লীগের নির্বাহী কমিটির সদস্য মো. শের আলী খানকে (৭০) মারধর ও তাঁর মোটরসাইকেল ভাঙচুরের আভিযোগ পাওয়া গেছে

গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার আটঘর ইউনিয়নের বোয়ালিয়া বাজারে এ ঘটনা ঘটে।উপজেলার আটঘর ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একরাম হোসেন ও তাঁর সমর্থকরা উপজেলা আওয়ামী লীগের ওই নেতাকে মারধর করেন এবং তাঁর মোটরসাইকেলটি ভেঙে দেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শের আলী খান বোয়ালিয়া বাজারে এক চায়ের দোকানে বসে গল্প করছিলেন।

এ সময় ইকরাম হোসেন ও তার ছয়-সাতজন সহযোগী ওই দোকানে এসে শের আলীকে 'রাজাকার' বলে গালি দিয়ে তার পরনের শার্ট ছিড়ে ফেলেন ও মারধর করতে থাকেন। অবস্থা বেগতিক দেখে তিনি দোকানের সামনে রাখা নিজ মোটরসাইকেলটি ফেলে পালিয়ে যান।

পরে তার ফেলে যাওয়া মোটরসাইকেল ভাঙচুর করা হয়।মারধরের শিকার উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মো. শের আলী খান বলেন, "কাকিলাখোলা গ্রামের সন্ত্রাসী ইকরাম হোসেন ও তার সহযোগীরা দাবিকৃত চাঁদা না পেয়ে আমাকে মারধর করে।

এ সময় তারা আমার মোটরসাইকেলও ভাঙচুর করে।" এ ব্যাপারে ইকরাম হোসেন বলেন, "শের আলী একজন রাজাকার। পুলিশ তাকে খুঁজছে।"

শের আলীকে মারেননি দাবি করে ইকরাম হোসেন বলেন, "বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় রোয়ালীয়া বাজারে জনগণ শের আলীকে কাছে পেয়ে পেটায়।" তবে এ ঘটনার সময় তিনি ওই বাজারে ছিলেন বলে নিশ্চিত করেছেন ইকরাম।

সালথা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বোয়ালীয়া বাজারে উপজেলা আওয়ামী লীগের নির্বাহী সদস্য শের আলী খানকে মারপিট করা ও তাঁর মোটরসাইকেল ভেঙে দেওয়ার ঘটনা ঘটেছে বলে আমি শুনেছি।

তবে কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে সে বিষয়ে তাঁর কোনো ধারণা নেই। 'শের আলী খান রাজাকার' ইকরাম হোসেনের এ বক্তব্য সম্পর্কে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতির দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি বলেন, "আমি শুনেছি শান্তি কমিটির তালিকায় শের আলীর নাম রয়েছে।

তবে আমি নিজের চোখে ওই তালিকা দেখিনি।"সালথা থানার ওসি ডি এম বেলায়েত হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, "ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা কর্তৃক উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতাকে মারপিট ও মোটরসাইকেল ভেঙে দেওয়ার খবরটি আমার জানা নেই।

কেউ আমাকে বলেওনি।কিংবা আজ শুক্রবার দুপুর ১টা পর্যন্ত এ ব্যাপারে থানায় কেউ কোনো অভিযোগ করেনি।

এইবেলা্ডটকম/এফএআর