eibela24.com
বুধবার, ২৬, সেপ্টেম্বর, ২০১৮
 

 
গ্র্যান্ডসামের ফাইনালে এ্যান্ডারসনের বিপক্ষে নাদাল
আপডেট: ০৩:১৩ pm ১০-০৯-২০১৭
 
 


চতুর্থবারের মতো ইউএস ওপেনের ফাইনালে উঠলেন স্পেনের টেনিস তারকা রাফায়েল নাদাল। শুক্রবার দুর্দান্ত ফর্মে থাকা আর্জেন্টিনার জোয়ান মার্টিন ডেল পোত্রোকে ৪-৬, ৬-০, ৬-৩ ও ৬-১ গেমে পরাজিত করে তিনি ফাইনালে উঠেন।  রবিবার দক্ষিণ আফ্রিকার কেভিন এ্যান্ডারসনের বিপক্ষে খেলবেন তিনি। 

টুর্নামেন্টের অন্য সেমিফাইনালে এ্যান্ডারসন কঠিন লড়াইয়ের পর ৪-৬, ৭-৫, ৬-৩ এবং ৬-৪ গেমে হারান পাবলো কারেনো বুস্তাকে। ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে প্রথম সেটটা অবশ্য নাদাল হেরে গিয়েছিলেন। ৪-৬ সেটে হারার পরই দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ান তিনি। দ্বিতীয় সেটে ডেল পোত্রোকে আর বিন্দুমাত্র ছাড় দেননি এই স্প্যানিশ তারকা। তৃতীয় সেটটাও জিতে নেন নাদাল। এই সেটে শুরুতে প্রতিরোধ গড়লেও শেষ পর্যন্ত নাদালের সঙ্গে পেরে ওঠেননি ডেল পোত্রো। একইভাবে চতুর্থ সেটটাও জিতে নেন ১৫টি গ্র্যান্ডসামের মালিক নাদাল।

এর আগে তিনবার ইউএস ওপেনের ফাইনাল খেলেছেন নাদাল। এবার চতুর্থবারের মতো ইউএস ওপেনের ফাইনালে উঠতে পেরে দারুণ উচ্ছ্বসিত তিনি। ম্যাচ শেষে নিজের অভিমত প্রকাশ করতে গিয়ে নাদাল বলেন, ‘এটা একটা দারুণ ব্যাপার। এত দর্শকের মধ্যে খেলাটা অন্যরকম অভিজ্ঞতা। প্রথম সেটটা হারার পর এভাবে ঘুরে দাঁড়ানোটা বিস্ময়কর ছিল।’তার লক্ষ্য এখন ১৬তম গ্র্যান্ডসাম। সেজন্য ফাইনালেও নিজের সেরা খেলার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন তিনি। 

এদিকে ফাইনালে উঠতে না পেরে চরম হতাশ ডেল পেত্রো। এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমার ফ্লু হয়েছিল। এ ছাড়া ফেদেরার ও ডোমিনিকের বিপক্ষে ম্যাচ দুটো জেতার পর বেশ ক্লান্ত ছিলাম আমি। তবে এগুলোকে হারের কারণ হিসেবে দাঁড় করাতে চাই না। নাদাল আজ আমার চেয়ে অনেক ভাল খেলেছে। সত্যি কথা বলতে সে যেভাবে খেলেছে জয়টা তারই প্রাপ্য ছিল।’

রাফায়েল নাদালের জন্য ফাইনাল ম্যাচটা সহজ হবে না। কারণ কেভিন এ্যান্ডারসনের এটি প্রথম গ্র্যান্ডসামের ফাইনাল হলেও তাকে হালকা ভাবে নিয়ে ভুল করবেন না নাদাল। ৩০ বছরের মধ্যে এই প্রথম কোন দক্ষিণ আফ্রিকার টেনিস তারকা ইউএস ওপেনের ফাইনালে উঠলেন। র‌্যাংকিংয়ের ৩২তম স্থানে থেকে এবারের ইউএস ওপেন শুরু করেছিলেন এ্যান্ডারসন। ১৯৭৩ সালের পর থেকে র‌্যাংকিংয়ে এত নিচে থেকে কেউ ইউএস ওপেনের ফাইনালেই উঠতে পারেননি। তাই এ্যান্ডারসনের ভাবনাতে এখন শুধুই ক্যারিয়ারের প্রথম গ্র্যান্ডসাম জয়।


আরপি