শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
শুক্রবার, ৬ই আশ্বিন ১৪২৫
 
 
স্বভাব কবি এস এম আবুল বাসার
প্রকাশ: ০৬:১৭ pm ২৪-০১-২০১৭ হালনাগাদ: ০৬:১৭ pm ২৪-০১-২০১৭
 
 
 


এইবেলা ডেস্কঃ  স্বভাব কবি এস এম আবুল বাসারের জন্ম ১৯৩৫ সালের ৭ মার্চ কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার মৌকারা ইউনিয়নের কালেম গ্রামে। পিতা মৃত আবদুল গণি, মাতার নাম রাবেয়া বেগম ওরফে মিতুনি বিবি।

দাদা আফতাব উদ্দিন, দাদির নাম মোসাম্মদ লজ্জাতের নেছা। পিতার দাদা আলীম উদ্দিন র্স্বণকার। বরিশালের ভোলাতে এই ব্যবসা করতেন। দাদীর বাবা আজগর আলী মজুমদার কেশতলার অষ্টমী তালুকের মালিক জমিদার ছিলেন।

কবি এস এম আবুল বাশার ৭ ভাই বোনের মধ্যে চতুর্থ। কবি কেশতলা প্রাইমারীতে ১ম, ২য় শ্রেণীতে অধ্যয়ন করেন, এরপর বর্তমান মনোহরগঞ্জ উপজেলার পোমগাও প্রাইমারী স্কুলে ৩য় শ্রেণীতে ভর্তি হন,সেখানে ৫ম শ্রেণী পর্যন্ত লেখাপড়া করেন।

এরপর ভারত ভাগের পর ১৯৪৮ সালে বরিশালের ভোলাতে যুগিরহাট স্কুলে ভর্তি হন ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে। সেখান থেকে ঢাকা আসেন। শাহজাহানপুর হাইস্কুলে লেখাপড়া করেন।

১৯৫২ সালে ঢাকাতে ভাষা আন্দোলনের সময় গুলশান নূরের চালাতে থেকে ভাষার প্রতি জোর সমর্থন ও আন্দোলন বেগবানে গুরুত্বর্পূণ ভূমিকা রাখেন। সেখান থেকে ১৯৫৩ সালে এসএসসি পরীক্ষা দিলেও তিনি ফেল করেন।

তারপর আর পড়াশুনা হয়নি।  ১৯৫৬ সালে পাকিস্তান জন্মের ৯ বছর পর সংবিধান রচনা করলে প্রতিবাদী একটি কবিতা রচনা করে  আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে চলে আসেন।

সেই কবিতাটির পর থেকেই নিয়মিত লেখা শুরু। ১৯৬৫ সালে ৩০ বছর বয়সে পাশ্ববর্তী গ্রাম কেশতলার জহিরুল হক মজুমদারের প্রথম কণ্যা ভাগ্যতের নেছাকে বিয়ে করেন। দাম্পত্য জীবনে ৫ ছেলে ১ মেয়ে রয়েছে।

গ্রামের বাড়িতে আত্মীয় স্বজন ও প্রিয়তমা স্ত্রী থাকলে ও নিয়মিত ১৯৭৯ সাল পর্যন্ত ঢাকাতে থাকেন। সেখানে থেকে লেখালেখি আর ব্যবসা বাণিজ্য করেছেন।

তবে ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধে সময় নোয়াখালী ও লক্ষীপুরে থেকে মুক্তিবাহিনীকে প্রতিনিয়ত খবরাখবর দিয়ে সহযোগিতা করতেন। নিজ রচিত গান ও কবিতা শুনিয়ে দেশপ্রেমে প্রেরণা যোগাতেন।

দেশ স্বাধীনের পর ঢাকার গুলশানে যান তিনি। কত বড় বিশাল মনের অধিকারী হলে ভাষাসৈনিকও মুক্তিযোদ্ধা খেতাবটি পাওয়ার জন্য কোনকালে চেষ্টা ও তদবীর করেননি তিনি।

স্বর্ণ ব্যবসায়ীও লেখালেখি করে অবশেষে ১৯৭৯ সালের মাঝামাঝি সময়ে স্থায়ীভাবে নিজ এলাকা নাঙ্গলকোটে চলে আসেন। তবে এই ফাঁকে ১৯৭৩-৭৪ সালের দিকে বনানীতে টাঙ্গাইল যাওয়ার পথে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সাথে নুরুল ইসলাম খান, সিরাজুল ইসলামসহ আরো নেতৃবৃন্দের সাথে তরুন কবি ও কলামিষ্ট এস এম আবুল বাশার দেখা করেন।

তখন উপস্থিত অন্য সবার সাথে তরুন কবি ও ব্যবসায়ী হিসেবে জাতির পিতার সাথে করমর্দন ও কোলাকুলি করেন। তখন গুলশান হকার মার্কেট সমবায় সমিতির উদ্যোগে সকল কর্মকান্ডই হতো শেখ মুজিবকে ঘিরে।

একদিন প্রোগ্রাম শুরুর সময় আবুল বাসারের কবি পরিচয় জেনে বঙ্গবন্ধু বুকে টেনে নেন। বঙ্গবন্ধু কবি লেখকদের যে কতটা ভালবাসতেন, তার নমুনা তিনি সেদিন অনুভব করেছেন।

১৯৭৯ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত নাঙ্গলকোটে ব্যবসা বাণিজ্য ও অবস্থান করে   তার জীবনের ৮২ বছরের ফল স্বরুপ ঝুলিতে জমা পড়লো কবিতা, গল্প, ছড়া, গান, প্রবন্ধ, ইতিহাস, আত্মজীবনী, দেশভাগের কাহিনী, নাঙ্গলকোট উপজেলার ইতিহাস, উপন্যাস, স্মৃতিকথা,রম্য রচনা, বিজ্ঞান, ফিচার,কলাম ও চোখে দেখা বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে নিয়মিত পত্রিকায় চিঠিপত্র বিভাগে লেখাসহ নানান লেখা ও পান্ডুলিপি।

এর মধ্যে প্রকাশিত হয়েছে ২০০২ সালে উপন্যাস সাফল্যের সিঁড়ি, ২০১৭ সালে কবিতার গ্রন্থ কবিতায় বিশ্ব দেখি। প্রকাশের অপেক্ষায় রয়েছে- বাদী কেন চৌদ্দ বছর সাজা পায় (উপন্যাস), আবুল বাসারের গান সমগ্র, আবুল বাসারের গজল সমগ্র, আবুল বাশারের ১০০টি চিত্রকর্ম নিয়ে পান্ডুলিপি, নাঙ্গলকোট উপজেলার ইতিহাস। 

পুরষ্কার পেয়েছেন- নাঙ্গলকোট রাইটার্স এসোসিয়েশন সংবর্ধনা-২০১২, নাঙ্গলকোট টাইমস সম্মাননা স্মারক-২০১৭। পদ পদবী: নাঙ্গলকোট রাইটার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি  (২০১৫-১৭), জাতীয় কবিতা মঞ্চ’র কুমিল্লা জেলা শাখা সভাপতি (১৬-১৭), কুমিল্লা কবি ফোরামের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য, লাকসাম লেখক সংঘের সাধারণ সম্পাদক, কালেম জামে মসজিদ পরিচালনা পর্ষদের সেক্রেটারি, নাঙ্গলকোট বাজার ব্যবসায়ী পরিচালনা কমিটির সদস্য, নাঙ্গলকোট উপজেলা সাংবাদিক সমিতির আহবায়ক, অনলাইন পত্রিকা নাঙ্গলকোট টাইমস পত্রিকার সহ-সাহিত্য সম্পাদকের সততা সহিত দায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়া ও তিনি নাঙ্গলকোট বাজার স্বর্ণপট্টিতে বাশার জুয়েলার্সের স্বত্ত্বাধিকারী।

জীবনের সায়াহেৃ এসেও এখনো লিখে চলেছেন অমর কথা সাহিত্য। উর্বর করছেন বাংলা সাহিত্য ভান্ডার। আসছে ৭ মার্চ প্রিয় কবির ৮২তম জন্মদিনে ফুলেল শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

 

এইবেলাডটকম/হানিফ/গোপাল

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71