শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮
শনিবার, ৩রা অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি নিয়ে গুঞ্জন পছন্দের প্রার্থীর জন্য নানা কৌশলে যোগ্যতা নির্ধারণ 
প্রকাশ: ০৫:০১ am ২৮-০৪-২০১৭ হালনাগাদ: ০৫:০১ am ২৮-০৪-২০১৭
 
 
 


কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিঃ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক এবং কর্মকর্তা নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি নিয়ে ক্যাম্পাসে চলছে নানা গুঞ্জন। পছন্দের প্রার্থীদের জন্য আবেদনের যোগ্যতা নির্ধারন নিয়ে বিজ্ঞপ্তিতে নানা কৌশল অবলম্বন করেছে প্রশাসন এমন মন্তব্য করছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-কর্মকর্তারা। 

জানা যায়, গত ২৫ এপ্রিল একটি জাতীয় দৈনিক প্রত্রিকায় বেশ কিছু বিভাগে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি দেয়া হয়। সেখানে ইংরেজী বিভাগে শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞপ্তিতে প্রার্থীর যোগ্যতা নির্ধারণকে কেন্দ্র করে নানা প্রশ্ন উঠেছে। প্রার্থীর যোগ্যতা নির্ধারনে বলা হয় প্রার্থীকে স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর পর্যায়ে উভয়টিতে ৫৫ শতাংশ নাম্বারসহ দ্বিতীয় শ্রেণী অথবা নূন্যতম সিজিপিএ ৩.৩৫ থাকতে হবে। এছাড়াও প্রার্থীর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষাগত যোগ্যতা নির্ধারণেও রয়েছে নানা সমালোচনা। সেখানে বলা হয় এসএসসি এবং এসএইচসি উভয় পরীক্ষায় প্রথম বিভাগ অথবা যে  কোন একটিতে জিপিএ ৪.০০ এবং অন্যটিতে জিপিএ ৩.৫০ থাকতে হবে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ইংরেজী বিভাগের বেশ কয়েকজন শিক্ষক ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘বাংলাদেশের কোন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগে দ্বিতীয় শ্রেণী নির্ধারণ করা হয় না। কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে নির্দিষ্ট কোন প্রার্থীকে নিয়োগ দেয়ার জন্য এই ধরনের যোগ্যতা নির্ধারণ করা হয়েছে।’ প্রার্থীর মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে যেখানে একটিতে জিপিএ ৪ চাওয়া হল সেখানে কেন অপরটিতে জিপিএ ৩.৫০ চাওয়া হল।

এদিকে গত ২০ এপ্রিল একটি জাতীয় দৈনিকে কর্মকর্তা নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে প্রশাসন। এ বিজ্ঞপ্তি নিয়েও উঠেছে নানা প্রশ্ন। এ বিজ্ঞপ্তিতে পিএসটু ভিসি, জনসংযোগ কর্মকর্তাসহ কম্পিউটার অপারেটরের জন্য যোগ্যতা নির্ধারণে বলা হয়েছে প্রার্থীকে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রীধারী হতে হবে। তবে একই বিজ্ঞপ্তিতে মেডিকেল অফিসারের জন্য বলা হয়েছে প্রার্থীকে স্বীকৃত কোন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমবিবিএস ডিগ্রীধারী হতে হবে। বিজ্ঞপ্তির এ অসংগতি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান বলেন, ‘বর্তমান উপাচার্য প্রশাসনকে আত্মীয়করণ করার লক্ষ্যে মেডিকেল অফিসারের মত গুরুত্বপূর্ণ পদে প্রার্থীর এ ধরনের যোগ্যতা নির্ধারণ করেছেন।’ 

নিযোগ বিজ্ঞপ্তির বিষয়ে উপচার্য অধ্যাপক ড. মো: আলী আশরাফ বলেন, ‘ইংরেজী বিভাগে প্রার্থীর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ে শিক্ষাগত যোগ্যতা আমি নির্ধারণ করিনি। এটা বিভাগ থেকে অনুষদ হয়ে আমার কাছে এসেছে।’

 

এইবেলাডটকম/শফিউল্লাহ/গোপাল

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71