রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮
রবিবার, ৪ঠা অগ্রহায়ণ ১৪২৫
 
 
শিবগঞ্জে জঙ্গি আস্তানায় ‘ঈগল হান্ট’ এর অভিযান শেষ ॥ নিহত-৪ ॥ জীবিত নারী- শিশু উদ্ধার
প্রকাশ: ০৬:০৬ am ২৮-০৪-২০১৭ হালনাগাদ: ০২:৪৮ am ২৯-০৪-২০১৭
 
 
 


চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধিঃ চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার মোবারকপুর-চককীর্ত্তি ইউনিয়নের ত্রিমোহনী-শিবনগর গ্রামে ঘিরে রাখা সন্দেহভাজন জঙ্গি আস্তানায় ‘অপারেশন ঈগল হান্ট’ দ্বিতীয় দিন আজ বৃহষ্পতিবার সকাল সাড়ে ৯ টায় শুরু হওয়া অভিযান অবশেষে সন্ধ্যা পৌনে ৭টায় শেষ হয়েছে।

এক প্রেস ব্রিফিং এ পুলিশের রাজশাহী রেঞ্জের ডিআইজি খুরশিদ আলম বলেন, দুইদিনে “অপারেশন ঈগল হান্ট” এর অভিযানে জঙ্গি আস্তানায় থাকা জঙ্গি রফিকুল ইসলাম আবু সহ ৪ জন নিহত হয়েছে ও অভিযান চলাকালে জঙ্গি আবুর স্ত্রী সুমাইয়া (২৭) ও দুই বছরের শিশুকন্যা সাদিকাকে জীবিত উদ্ধার করা হয়। “অপারেশন ঈগল হান্ট” এর অভিযান সমাপ্ত করা হয়েছে। উদ্ধাকৃত জঙ্গি  আবুর স্ত্রী সুমাইয়া (২৭) ও দুই বছরের শিশুকন্যা সাদিকা চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে এবং দুইজনই আহত হলেও আশঙ্কা মুক্ত রয়েছে জানান চাঁপাইনবাবগঞ্জ সিভিল সার্জন ডাঃ কাজী শামিম আহম্মেদ। এর আগে ‘অপারেশন ঈগল হান্ট’ অভিযান চলাকালে আজ বৃহষ্পতিবার বিকেল ৫টায় আবুর স্ত্রী সুমাইয়া ও ৫টা ২৩ মিনিটে শিশুকন্যা সাদিকা কে উদ্ধার করে কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের দলের সদস্যরা। আজ বৃহষ্পতিবার সকালে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। তবে, এ সংবাদ লেখা আগ পর্যন্ত কাউন্টার টেররিজম ইউনিট, সোয়াট ও বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল ঘটনাস্থলে রয়েছে। এছাড়া নিরাপত্তার স্বার্থে ত্রিমোহনী-মোবারকপুর এলাকায় আইন শৃঙ্খলা মোতায়েন রয়েছে। এদিকে আজ বৃহষ্পতিবার সকালে শিবগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ হাবিবুল ইসলাম হাবিল জানান, রাতের বিরতির পর আজ সকালে আবার অপারেশন শুরু হয়।

তবে সকাল ১০টা ৬ মিনিটে একটি বিকট শব্দ শোনা গেছে ওই বাড়ির ৪ শতাধিক গজ দূর থেকে। এছাড়া বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দলকে ঘটনাস্থলে আসে। এখনও থেকে থেকে গুলির শব্দ শোনা যায়। নিরাপত্তার কথা বলে পুলিশ ওই বাড়ির আশপাশের প্রায় ৬শ গজের ভেতর কাউকে যেতে দেয়নি। মোবারকপুর-চককীর্ত্তি ইউনিয়নের ত্রিমোহনী-শিবনগর গ্রামে ঘিরে রাখা সন্দেহভাজন জঙ্গি আস্তানায় এলাকা ১৪৪ ধারা জারি থাকলেও উৎসুক জনতার ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।

এর আগে গত বুধবার সকাল থেকে ঘিরে রাখা আস্তানাটিতে সন্ধ্যায় সোয়াট সদস্যরা চূড়ান্ত অভিযান শুরু করলেও দুই ঘণ্টা পরই স্থগিত করে। এর আগে বুধবার রাত ৯টার দিকে প্রেস ব্রিফিংয়ে কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের কর্মকর্তা উপ-পুলিশ কমিশনার প্রলয় কুমার জোয়ার্দার জানিয়েছিলেন, ওই বাড়ির ভেতর থেকে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি একটি গ্রেনেড নিক্ষেপ করা হয় এবং চার-পাঁচটি বিকট বিস্ফোরণও ঘটানো হয়। ঢাকা থেকে হেলিকপ্টারে করে চাঁপাইনবাবগঞ্জে আসার পর উপজেলার শিবনগর-ত্রিমোহনী গ্রামে ঘেরা ওই বাড়ির কাছে পৌঁছান সোয়াট সদস্যরা।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের পুলিশ সুপার এটিএম মুজাহিদুল ইসলাম বলেন, রাজশাহী থেকে তিন প্লাটুন বিশেষ ফোর্স ঘটনাস্থলে রয়েছে। এছাড়া ঢাকাস থেকে সোয়াট টিম এসেছে। এখন অভিযান তারাই পরিচালনা করছে। পুলিশ কেবল তাদের বাইরে থেকে সাপোর্ট দিচ্ছে। অভিযান শেষ হলে তারা সোয়াটের কাছ থেকে ওই বাড়ির দায়িত্ব বুঝে নেবে। আপাত নিরাপত্তার স্বার্থে বাড়িটির আশপাশে কাউকে যেতে দেয়া হচ্ছে না বলেও জানান পুলিশ সুপার।

 

এইবেলাডটকম/ইমরান/গোপাল

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
Study in RUSSIA
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : নিন্দ্রা ভৌমিক

খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2018 Eibela.Com
Developed by: coder71