শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০১৯
শুক্রবার, ৪ঠা শ্রাবণ ১৪২৬
 
 
ধর্ম ঘটের ২য় দিনে কৃষকের মাথায় হাত, উত্তরাঞ্চলে শ’শ’ টন সবজি নিয়ে শঙ্কা
প্রকাশ: ০৩:১৮ pm ০২-১২-২০১৬ হালনাগাদ: ০৩:১৮ pm ০২-১২-২০১৬
 
 
 


সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ ধর্ম ঘটের ২য় দিনে কৃষকের মাথায় হাত,  উত্তরাঞ্চলে শ’শ’ টন সবজি  নিয়ে শঙ্কা ।

ফলে উত্তরাঞ্চলের কৃষকদের ব্যবসা বানিজ্য ক্ষতির মুখে পড়েছে। বিশেষ করে কাঁচা মালামাল ব্যবসায়ি ও চাষিদের মাথায় বজ্রপাতের উপক্রম হয়েছে।

ট্রাক মালিক ও তাদের সাথীয় সংগঠনের এই অনির্দিষ্ট দিনের জন্য ডাকা ধর্মঘটে স্থবির হয়ে পড়েছে স্থানীয় ও পাইকারী বাজার গুলিতে এর প্রভাব পড়তে শুরু করেছে।

সিরাজগঞ্জ জেলা সহ উত্তরাঞ্চলের কাঁচামাল ব্যবসায়ী এবং চাষীরা জানেনা এই ট্রাক মালিকদের এই ধর্মঘটের যৌক্তিকতা কি? কিন্তু তারা শুরু জানতে চায় কবে কখন এই ধর্মঘট নামের শব্দটি আর শুরতে হবে না।

তাদের উৎপাদতি বিভিন্ন জাতের শত শত মন শীতকালীন সবজি নিয়ে তাদের আর কোন টেনশন থাকবে না। সিরাজগঞ্জের হাটিকুমরুল গোল চত্বর এলাকায় আজ শুক্রবার সকালে গিয়ে দেখা যায়, পুরোহাট শীতের কাঁচা সবজির বিপুল আমদানী। কিন্তু বেঁচা কেনা অনিশ্চিত। পূর্বাঞ্চলের বিভিন্ন জেলা ও দুর দরান্ত থেকে আসা ক্রেতারা থাকলেও তারা পরবিহণ র্ধমঘটের কারনে কোন কাচাঁমালই কিনছে না।

ফলে স্থানীয় কৃষকরা হতাশায় প্রহর গুনতে বাধ্য হয়েছেন। ঢাকা, নারায়গঞ্জ থেকে আসা বড় পাইকারদের এর সাথে কথা বললে তারা জানান, প্রতি দিনের ন্যায় আমরা আজ পঞ্চাশ থেকে ষাট হাজার টাকার সবজি কিনেছি কিন্তু হঠাৎ পরবিহণ শ্রমিক ও মালিকদের অনির্দিষ্টি কালের র্ধমঘট তারা এখন অসহায় হয়ে পড়েছেন।

তারা সংবাদ কর্মীদের দেখে প্রশ্ন তুলছেন এই ধর্মঘট কি আমাদের পথে বসে দিচ্ছে। এবিষয়ে সবজি বিক্রেতা চাষীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, গতকাল বুধবার যে, ফুলকপি আটশ, হাজার টাকা দরে বিক্রি হেেয়ছ আজ তা ৩দশ টাকা মন, বাধাঁ কপি বুধবার ছিল ২২ টাকা পিস দরে, বৃহস্পতিবার সেটি ৬ টাকা পিস দরে বিক্রি হয়েছে।

 মুলা ২শ টাকা মন, নতুন আলু ৩৫ টাকা কেজি, বেগুন ৪শ টাকা, বরবটি ৫৫০টাকা মন, পেপে ৩শ টাকা মন, গাজর, ৮শত টাকা মন, করলা ৬শ টাকা মন। শুধু তাই নয় শ্রমিক র্ধমঘটের কারণে সিরাজগঞ্জের সলঙ্গা, তাড়াশ, রাজশাহী বনপাড়া, গুরুদাসপুর থেকে আসা পণ্যরে বাজারই ছিল ধ্বসের মুখে।

এদিকে মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ সূত্রে জানা যায়, আমাদরে ৭ দফা দাবি না মানা পর্যন্ত সিদ্ধান্ত অনড় থাকবে। উল্লখ্যে যে, উত্তরবঙ্গের ট্রাক-লরি কার্ভাডভ্যান মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদরে সভা থেকে এ ধর্মঘটের আহ্বান জানানো হয়।

সাত দফা দাবির মধ্যে রয়েছে, টোকেন, ফিটনেস রুট পারমিটর বকেয়া সুদ মওকুফ, ওয়ে স্কলেরে (ওজন পরিমাপক যন্ত্র) নামে চাঁদাবাজি বন্ধ, সড়ক-মহাসড়কে অবধৈ যান চলাচল বন্ধ, ড্রাইভিং লাইসন্সে নবায়নের ক্ষেত্রে হয়রানি বন্ধ এবং সহজ শর্তে নতুন ড্রাইভিং লাইসেন্স প্রদান।

ঐক্যপরিষষদ সূত্রে আরও জানা যায়, সংগঠনের পক্ষ থেকে ইতির্পূবে ৩০ নভেম্বরের মধ্যে দাবি-দাওয়া মেনে নেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছিল। কিন্তু প্রশাসন তা অগ্রাহ্য করে ফলে পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে পরর্বতী ঘোষণা না দেওয়া র্পযন্ত উত্তরাঞ্চলে ট্রাক, ট্যাংক লরি ও কার্ভাডভ্যানে পণ্য পরিবহন বন্ধ থাকবে। আজ ধর্মঘটের কারণে মহা সড়কে শত শত পূণ্যবাহী ট্রাক আটকে থাকতে দেখা গেছে।

 

এইবেলাডটকম/চন্দন/গোপাল

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 
 
 

সম্পাদক : সুকৃতি কুমার মন্ডল 

 খবর প্রেরণ করুন # info.eibela@gmail.com

ফোন : +8801517-29 00 02

+8801711-98 15 52

a concern of Eibela Foundation

Request Mobile Site

 

 

Copyright © 2019 Eibela.Com
Developed by: coder71