সোমবার, ৩০ নভেম্বর ২০২০
সোমবার, ১৬ই অগ্রহায়ণ ১৪২৭
সর্বশেষ
 
 
আড়াইহাজারে দুর্গা প্রতিমা ভাংচুর
প্রকাশ: ১১:২৯ pm ২৯-১০-২০২০ হালনাগাদ: ১১:২৯ pm ২৯-১০-২০২০
 
নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি
 
 
 
 


নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে গৌর নিতাই আখড়া দুর্গা মন্ডপের দুর্গা প্রতিমা ভাংচুর করেছে অজ্ঞাত ব্যক্তিরা। এ ঘটনায় এলাকার হিন্দু জনগোষ্ঠির মধ্যে আতংক বিরাজ করছে।

ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার (২০ অক্টোবর) দিবাগত রাতে উপজেলার আড়াইহাজার পৌরসভার কামরানীরচর শ্রীশ্রী গৌর নিতাই আখড়া দুর্গা মন্ডপে।

ঐ মন্দিরের দুর্গা পূজা কমিটির সভাপতি নিতাই ভৌমিক জানান, তাদের মন্দিরের প্রতিমা নির্মাণ শিল্পিরা রাতে প্রতিমায় আংশিক রং করে চলে যায়। পরে তারা মন্ডপে প্রতিমা ঢেকে রেখে বাড়িতে চলে যায়। বুধবার সকালে স্থানীয় লোকজন প্রতিমা দেখতে এসে দেখতে পান যে, দুর্গা প্রতিমার বাম পাশের দুটি হাত ভাঙ্গা, কার্তিক ও স্বরসতীর গলা থেকে ভেঙ্গে মাথা ঝুলিয়ে রাখা এবং কালি প্রতিমার ১টি হাত ভাঙ্গা অবস্থায় দেখতে পায়। পরে স্থানীয় পূজারীদেরকে জানান। সকালে পূজা আয়োজন কমিটি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও পুলিশ প্রশাসনকে ঘটনাটি অবগত করান। খবর পেয়ে আড়াইহাজার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুজাহিদুর রহমান হেলো সরকার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সোহাগ হোসেন, আড়াইহাজার পৌরসভার মেয়র সুন্দর আলী, থানার ওসি নজরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

এছাড়াও বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ নারায়ণগঞ্জ জেলার সাধারন সম্পাদক শিখন সরকার শিপন, কোষাধ্যক্ষ সুশিল দাস, পূজা উদযাপন পরিষদের আড়াইহাজার উপজেলা আহবায়ক ও হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদ আড়াইহাজার উপজেলার সভাপতি হারাধন চন্দ্র দে, যুব ঐক্য পরিষদের সভাপতি সুকান্ত ভৌমিক অটল, রূপগঞ্জ উপজেলা যুব ঐক্য পরিষদের সভাপতি বাবুল শীল, সহ সভাপতি মিলন সরকার, গীতা সংঘের সভাপতি সজীব সেন, ব্রাহ্মন সমাজের সভাপতি রামকৃষ্ণ চক্রবর্তী, তপু মন্ডল, সুমন চক্রবর্তী, বাবলু চক্রবর্তী সহ পূজা উদযাপন পরিষদ ও হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদের নেতৃবৃন্দ ঘটনাস্থল যান।

এ ঘটনায় স্থানীয় হিন্দু জনগোষ্টির মধ্যে আতংক বিরাজ করছে। তবে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, পৌরসভার মেয়র, জেলা পূজা উদযাপন পরিষদ ও উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দ স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনদের সাথে কথা বলে স্থানীয় পূজারীদের শান্তিপূর্ণ পরিবেশে পূজানুষ্ঠানের আয়োজনে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেওয়া হয় এবং তাৎক্ষনিক প্রতিমা মেরামতের ব্যবস্থা করেন।

নারায়ণগঞ্জ জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারন সম্পাদক শিখন সরকার শিপন বলেন, কিছু দুষ্টু প্রকৃতির লোক এ ঘটনা ঘটাতে পারে, এ চক্রটি সরকার ও প্রশাসন সহ সমাজে বিব্রতকর পরিবেশের পায়তারা করছে।

আড়াইহাজার উপজেলা পূজাউদযাপন পরিষদের আহবায়ক হারাধন চন্দ্র দে জানান, উপজেলার সকল ধর্মের লোকজন সম্পীতির বন্ধনে আবদ্ধ। দুই একজন দুষ্ট লোকদের জন্য এলাকার ভাবমূর্তি নষ্ট হতে দেওয়া যাবেনা। তিনি ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতারের দাবী জানান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সোহাগ হোসেন জানান, উপজেলার সকল পূজামন্ডপে ও মন্দিরে সি,সি ক্যামেরা লাগানোর জন্য উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ হতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে এবং প্রশাসন ক্যামেরা লাগাতে সকল প্রকার সহযোগিতা করবে।

আড়াইহাজার থানার ওসি নজরুল ইসলাম জানান, এ ঘটনার প্রেক্ষিতে পুলিশ তদন্ত করছে। জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে। সন্ধ্যায় পুলিশ সকল পূজা মন্ডপের নেতৃবৃন্দদের সাথে জরুরী সভা আহবান করেছে। তবে এ পর্যন্ত কাউকে পুলিশ গ্রেফতার করতে পারেনি।

নি এম/

 
 
 
   
  Print  
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
 
আরও খবর

 
 
 

 

E-mail: info.eibela@gmail.com

a concern of Eibela Ltd.

Request Mobile Site

Copyright © 2020 Eibela.Com
Developed by: coder71